ঢাকাবৃহস্পতিবার , ৮ সেপ্টেম্বর ২০২২
আজকের সর্বশেষ সবখবর

বিক্ষোভের মুখে মন্দির থেকে ফিরে এলেন রণবীর-আলিয়া

অনলাইন ডেস্ক
সেপ্টেম্বর ৮, ২০২২ ৩:২৬ অপরাহ্ণ
Link Copied!

রণবীর ও আলিয়া অভিনীত ব্রহ্মাস্ত্র সিনেমা নিয়ে হইচই বি-টাউনে। এর মধ্যেই ঘটে গেল এক ‘অঘটন’।

বলিউড সুপারস্টার রণবীর কাপুর ও আলিয়া ভাট মধ্যপ্রদেশে বিক্ষোভের মুখে পড়েছেন। তাদের ঢুকতেই দেওয়া হয়নি উজ্জয়িনীর শিব মন্দিরে।

আগামীকাল মুক্তি পাচ্ছে রণবীর এবং আলিয়া ভাট অভিনীত নতুন ছবি ‘ব্রহ্মাস্ত্র পার্ট ১: শিবা’। তার আগে মঙ্গলবার উজ্জয়িনীর শিব মন্দিরে আশির্বাদ নিতে গিয়েছিলেন রণবীর ও আলিয়া। সঙ্গে ছিলেন পরিচালক অয়ন মুখোপাধ্যায়। মন্দিরের কাছে পৌঁছতেই বিক্ষোভের মুখে পড়েন তারা।

মঙ্গলবার মুম্বাই থেকে রওনা হয়ে উজ্জয়িনীর মহাকালেশ্বর মন্দিরের সামনে পৌঁছনোর পর তাদের অভ্যর্থনা জানানো হয় মন্দির কর্তৃপক্ষের পক্ষ থেকে। কিন্তু মন্দিরে ঢুকতে যেতেই বাধা দেন আগে থেকেই জড়ো হয়ে থাকা বিক্ষোভকারীরা। ১১ বছর আগে গরুর মাংস নিয়ে করা রণবীরের একটি মন্তব্যকে তুলে ধরে বিক্ষোভ দেখানো হয়।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, ২০১১ সালে ‘রকস্টার’ ছবির প্রমোশনের সময় একটি সাক্ষাৎকারে রণবীর বলেছিলেন, আমার পরিবার পেশোয়ারের। ফলে পোশায়ারি খাবারের সঙ্গে পরিচিত আমি। মটন, পায়া এবং গরুর মাংস ভালোবাসি। গরুর মাংসের বড় ভক্ত আমি।

ব্রহ্মাস্ত্র মুক্তির আগেই রণবীরের সেই মন্তব্য সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ফের ভাইরাল হয়। এতেই ছবিটি বয়কট করারও আওয়াজ উঠতে শুরু করেছে ইতোমধ্যেই।

রণবীর-আলিয়া মহাকালেশ্বর মন্দিরে আসার আগেই বজরং দলের স্থানীয় নেতা অঙ্কিত জিন্দল হুশিয়ারি দিয়ে বলেন, রণবীর-আলিয়াকে আমরা মন্দিরে ঢুকতে দেব না।

ভারতীয় সংবাদ সংস্থা এএনআই-কে উজ্জয়িনীর পুলিশ কর্মকর্তা ওমপ্রকাশ মিশ্র বলেন, রণবীর, আলিয়ারা আসবেন বলে আগে থেকেই ভিআইপি নিরাপত্তার ব্যবস্থা করা হয়েছিল মহাকালেশ্বর মন্দিরে। তারা মন্দিরে পৌঁছতেই বেশ কিছু লোক সেখানে জড়ো হয়ে বিক্ষোভ দেখাতে থাকেন। বিক্ষোভকারীরা পুলিশের সঙ্গে হাতাহাতিতে জড়িয়ে পড়েন। যদিও পরিস্থিতি সামলে নেওয়া হয়েছিল।

শেষ পর্যন্ত রণবীর মন্দিরে ঢোকেননি। ঢোকেননি আলিয়াও। একমাত্র অয়নই মন্দিরে ঢুকে পুজো দেন। ইনস্টাগ্রামে তিনি সেই ছবি শেয়ারও করেছেন।

পাঠকপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল আমারনিউজ২৪.কমে লিখতে পারেন আপনিও। লেখার বিষয় ফিচার, ভ্রমণ, লাইফস্টাইল, ক্যারিয়ার, তথ্যপ্রযুক্তি, কৃষি ও প্রকৃতি। আজই আপনার লেখাটি পাঠিয়ে দিন aamarnews.bd@gmail.com ঠিকানায়।