ঢাকামঙ্গলবার , ৬ সেপ্টেম্বর ২০২২
আজকের সর্বশেষ সবখবর

যুক্তরাজ্যের তৃতীয় নারী প্রধানমন্ত্রী হচ্ছেন লিজ ট্রাস

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
সেপ্টেম্বর ৬, ২০২২ ২:৫৬ পূর্বাহ্ণ
Link Copied!

মার্গারেট থ্যাচার ও থেরেসা মের পর যুক্তরাজ্যের তৃতীয় নারী প্রধানমন্ত্রী হচ্ছেন লিজ ট্রাস। কনজারভেটিভ পার্টির নেতা নির্বাচনের ভোটাভুটি শেষে গতকাল সোমবার লন্ডনের স্থানীয় সময় বেলা সাড়ে ১২টায় বিজয়ী হিসেবে আনুষ্ঠানিকভাবে তার নাম ঘোষণা করা হয়।

বিবিসি জানায়, কনজারভেটিভ পার্টির প্রভাবশালী ১ হাজার ৯২২ সদস্যের কমিটির সভাপতি স্যার গ্রাহাম ব্রেডি ওই নির্বাচনের ফলাফল ঘোষণা করেন। এতে দেখা যায়, ৮১ হাজার ৩২৬টি ভোট পেয়েছেন বর্তমান পররাষ্ট্রমন্ত্রী লিজ ট্র্রাস। অন্যদিকে তার প্রতিদ্বন্দ্বী সাবেক অর্থমন্ত্রী ঋষি সানাক পেয়েছেন ৬০ হাজার ৩৯৯টি ভোট।

ক্ষমতাসীন দল কনজারভেটিভ পার্টির নতুন প্রধান হিসেবে নির্বাচিত হওয়ায় ট্রাস যুক্তরাজ্যের ১৫তম প্রধানমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব নেবেন। মঙ্গলবার রাণী দ্বিতীয় এলিজাবেথের সঙ্গে দেখা করে তার অনুমতি নিয়ে ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী হিসেবে ‘টেন ডাউনিং স্ট্রিটের’ দপ্তরে বসবেন লিজ।

বিজয়ী হবার পর পর লিজ ট্রাস বলেন, দেশের জ্বালানি খাতকে পুনরুজ্জীবিত করার পাশাপাশি স্বাস্থ্য সেবার উন্নয়ন এবং জনগণের ওপর আরোপিত কর হ্রাসের জন্য তিনি কাজ করবেন। পাশাপাশি ২০২৪ সালের সাধারণ নির্বাচনে কনজারভেটিভ পার্টিকে তিনি ক্ষমতায় আনার জন্য লড়বেন।

৪৭ বছর বয়সী লিজ ট্রাসের পুরো নাম মেরি এলিজাবেথ ট্রাস। তিনি শুধু বরিস জনসনের মন্ত্রিসভায় নয়, দায়িত্ব পালন করেছেন থেরেসা মে ও ডেভিড ক্যামেরনের সরকারেও। অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতক ডিগ্রী অর্জন করে ১৯৯৬ সালে যোগ দেন কনজারভেটিভ পার্টিতে। ২০১০ সালের নির্বাচনে সাউথ ওয়েস্ট নর্থ ফোক থেকে নির্বাচিত হয়ে ব্রিটিশ পার্লামেন্টের সদস্য হন লিজ। তার স্বামী হিউগ ও’লিয়ারির একজন অ্যাকাউন্ট্যান্ট। তাদের সংসারে দুটি কন্যা সন্তান রয়েছে।

২০১৯ সালে নির্বাচনে কনজারভেটিভ পার্টি একক সংখ্যাগরিষ্ঠতা অর্জনের পর মাত্র আড়াই বছরের মাথায় প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন ক্ষমতা ছাড়ার ঘোষণা দেন। কারণ, তিনি বিভিন্ন অপ্রীতিকর ঘটনা ও মন্ত্রিসভার বেশিরভাগ সদস্যদের বিদ্রোহের মুখোমুখি হয়েছিলেন। গত জুলাইয়ে বরিস পদ ছাড়ার ঘোষণা দিলে কনজারভেটিভ পার্টির নেতা নির্বাচনের জন্য এই ভোটাভুটি আয়োজনের প্রয়োজন পড়ে। অবশ্য লিজ ট্রাস মাত্র দুই বছর সরকারের নেতৃত্ব দিতে পারবেন। আগামী ২০২৪ সালে অনুষ্ঠেয় সাধারণ নির্বাচনে লিজকে আবারো দাঁড়াতে হতে পারে জনমতের পরীক্ষায়।

লিজের জয়ের ব্যাপারে আগে থেকেই ইঙ্গিত পাওয়া যাচ্ছিল। গত মাসে অনলাইন ও ডাকযোগে দলীয় সদস্যদের ভোট ও জনমত জরিপের ফলাফলে লিজের জয় প্রায় নিশ্চিত হয়ে যায়।

পাঠকপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল আমারনিউজ২৪.কমে লিখতে পারেন আপনিও। লেখার বিষয় ফিচার, ভ্রমণ, লাইফস্টাইল, ক্যারিয়ার, তথ্যপ্রযুক্তি, কৃষি ও প্রকৃতি। আজই আপনার লেখাটি পাঠিয়ে দিন aamarnews.bd@gmail.com ঠিকানায়।